পৃষ্ঠাসমূহ

শুক্রবার, ১২ জুলাই, ২০১৩

আদম যখন ঈশ্বর


চিদ্রূপ : 7(b)
আমার অংশগুলো টুকরো টুকরো
শব্দগুলো ব্যবচ্ছেদে বিপন্ন বিলুপ্ত প্রায়
ভাষা বির্নিমাণের প্রয়োজনে জরুরী হয়ে ওঠে
ভাব বিনিময় নগদায়নে খরচের খাতায়
সব কিছু ফিরে যাবে মূলে সেই শূন্যে!
তবু কেন না যাবার বাহানায় মেতে উঠি?

আমি জানি আমার অজানা অদেখা
আমার মতো অন্ধকার আলোর শহুরে একা।
হতবিহ্বল একা াসীম এক অন্য আমি সেই শূন্যে!
যে আমি স্বং ঈশ্বর তাঁর নিজ আদলে আদম বানালেন
যে আমায় সেজ্দা করেছিলো ফেরেছতাকূল।

আমিতো ঈশ্বর নই!
ঈশ্বরের মতন কেউ আদম আদলে
ফিরে যাবে মূলে, সেই শূন্যে!
তবে আমিতো ঈশ্বর নই?
তবে কেন ঈশ্বর মনে হয়!

ঈশ্বর নিজ আদলে আদম বানালেন, মানুষ আদলে নয়।
আদমের বাম পাজরের হাড় দিয়ে সঙ্গী বানালেন হাওয়া, নারী নয়।
আমি আদম! আমি শুধু পুরূষ কিম্বা শুধু নারী নই!
আমার সঙ্গীও না। তবে কেন আমাদের নারী ও পুরূষ হিসাবে ভাগ করো
নিজেরা কি দেখনা নিজেদের এক একটা নামে বাজারে তোল?
আমাদের যেদিন ফিরে যেতে হবে মূলে, সেই শূন্যে!
কাকে আমারা প্রশ্ন করবো? কার কাছে? কে দেবে এর উত্তর?

দয়া করে এখন থেকে শুধু পুরূষ কিম্বা শুধু নারী বলে ভাগ'না করে
আদম বলে ডেকো! নইলে আদম ঈশ্বর হয়ে উঠলে
তোমরা কাকে ব্যবচ্ছেদ করে নারী ও পুরূষ বলবে?
আর না পারলে শুধু মানুষ বলে ডেকো!

আমি আদম, আমিও ঈশ্বরের মতো দয়াময়!
আদম যে তাঁর আদলেই সৃষ্টি!

তবে আমি আদম কেন ঈশ্বর নই?
তবে কেন নিজেকে ঈশ্বর মনে হয়!

আর তোমাদের আজাজীল এর মতো শুধু পুরূষ কিম্বা শুধু নারী বলে ভাগ করার জন্য শয়তান বিশেষণ দিয়ে তাড়িয়ে দেবো আদমের সাম্রাজ্য থেকে।

ঈশ্বর বলে না ডাকতে পারলে শুধু মানুষ বলে ডেকো!
শুধু নারী কিম্বা শুধু পুরূষ বলে ডেকো!
নিশ্চয় মানুষের জন্য আদমের নিদর্শন রইলো।
১৮.১২.১১


Google+ Badge

send or tell a frind

voice of the protestant


take a look!

Translate

Sayed Taufiq Ullah